ব্রেকিং

x

যে কারণে খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিত হলো

সোমবার, ১৯ মার্চ ২০১৮ | ১০:১২ অপরাহ্ণ | 430 বার

যে কারণে খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিত হলো

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিনেরস্থগিতাদেশের মেয়াদ বাড়িয়ে ৮ মে পর্যন্ত করেছেন আদালত। এছাড়া রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদককে হাইকোর্টের রায়েরবিরুদ্ধে আপিল করারও অনুমতি দেয়া হয়েছে।


আদালত দু’সপ্তাহের মধ্যে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদক এবং আসামিপক্ষকে আপিলের সারসংক্ষেপ জমা দেওয়ার জন্যওনির্দেশ দিয়েছেন। ফলে আপিলের শুনানির জন্যই ৮ মে পর্যন্ত খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিত হলো।


১৯ মার্চ প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বিভাগ রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদকেরলিভ টু আপিল আবেদনের প্রেক্ষিতে খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিতাদেশের মেয়াদ বৃদ্ধি সংক্রান্ত আদেশ দেন।

প্রসঙ্গত, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকার বিশেষ জজ আদালত ৫ খালেদা জিয়াকে পাঁচবছরের সশ্রম  কারাদণ্ড দেন। এরপর থেকেই খালেদা জিয়া পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কারাগারে আছেন

এরপর খালেদা জিয়ার পক্ষে জামিন আবেদন করা হলে হাইকোর্ট গত ১২ মার্চ তাকে চার মাসেরঅন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেন।

পরদিনই আপিল বিভাগের চেম্বার জজ আদালতে তা স্থগিত চেয়ে আবেদন করেন রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদক ওইদিন আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর জামিন আদেশ স্থগিত না করে আবেদন দুটিশুনানির জন্য আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন।

১৪ মার্চ আপিল বিভাগ চার মাসের জামিন দিয়ে হাইকোর্টের দেয়া আদেশ ১৮ মার্চ পর্যন্ত স্থগিত করেন। ওইসময়ের মধ্যে দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষকে নিয়মিত আপিলের আবেদন (লিভ টু আপিল) করার নির্দেশ দেন সর্বোচ্চআদালত।

ওইদিন বিকালে খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেয়া জামিনের ওপর আপিল বিভাগের স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার চেয়েতার আইনজীবী চেম্বার জজ আদালতে আবেদন করলে তা শুনানির জন্য আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে পাঠিয়েদেয়া হয়। এদিকে বৃহস্পতিবার লিভ টু আপিল করে দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষ।

 

আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!