ব্রেকিং

x

শাপলা ও পদ্মে ভরবে মন

বৃহস্পতিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৬:২২ অপরাহ্ণ | 1492 বার

শাপলা ও পদ্মে ভরবে মন

একটি অনলাইন পত্রিকার সম্পাদক শাহীদুর রহমান শাহীদ গত সপ্তাহে পরিবার নিয়ে আসেন পদ্ম বিল দেখতে। ফেরার পথে লাল শাপলার বিলের ছবি দেখে তিনি মুগ্ধ। জানান, সময় করে এখানেও তিনি এসে ঘুরে যাবেন।


পদ্ম বিলটি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায়। আর শাপলার বিলটি পাশ্ববর্তী বিজয়নগর উপজেলায়। এ দুইটি বিল এখন পর্যটন সম্ভাবনাময় এলাকা। প্রতিদিনই শত শত মানুষ যাচ্ছে এ দুইটি বিল দেখতে। খুব একটা প্রচার না থাকলেও মূলত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছবি দেখে সেখানে ছুটছেন প্রকৃতি প্রেমিরা।
সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, পদ্ম বিলটি আখাউড়া উপজেলার মনিয়ন্দ ইউনিয়নের ঘাগুটিয়ায় অবস্থিত। আখাউড়া থেকে সিএনজি কিংবা ব্যাটারিচালিত অটোরিকশায় করে সেখানে যাওয়া যায়। একেবারে ভারত সীমান্ত ঘেঁষা এ বিল। বিলের পাশেই বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এর ক্যাম্প। বিলের কয়েক একর জমিজুড়ে ফুটে আছে অসংখ্য পদ্ম।
স্থানীয়রা জানালেন প্রতিদিনই শত শত প্রকৃতিপ্রেমি এখানে ছুটে আসেন। ব্রাহ্মণবাড়িয়া ছাড়াও ঢাকা, নরসিংদী, কুমিল্লা এলাকার লোকজন এখানে আসেন। বিলে ঘুরার জন্য এখানে রয়েছে একাধিক নৌকা, যা ভাড়া করে নিতে হয়।
আখাউড়া উপজেলা নির্র্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ শামছুজ্জামান বলেন, ‘এ ধরণের পদ্ম বিল সচরাচর দেখা যায় না। বিলটি দেখতে লোকজনের যে আনাগোনা সেটাই বলে দেয় বিলটি পর্যটন সম্ভাবনাময়। বিষয়টি জানার পর সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদকে বলা হয়েছে সংরক্ষনের জন্য। বিধি বিধানের আলোকে কি করা যায় সে বিষয়েও আমরা ভাবছি।’
লাল শাপলার বিলটি আখাউড়া-চান্দুরা সড়কের পাশে বিজয়নগর উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের ছতুরপুরে অবস্থিত। স্থানীয়ভাবে বটতলা বিল হিসেবেই এটি পরিচিত। পাশাপাশি দুইটি বিলে এখন ফুটে আছে হাজার হাজার লাশ শাপলা। এখানেও এখন প্রকৃতিপ্রেমিদের ভীড় থাকে।
লাল শাপলার ছবি তুলতে যাওয়া ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ফটো সাংবাদিক মো. বাহাদুর আলম বলেন, ‘সেখানে গিয়ে মুগ্ধ হই। ফুটন্ত শাপলায় বিলটি যেন হাসি দিয়ে আছে। ছবি তুলে এনে ফেসবুকে দেয়ার পর ব্যাপক সাড়া পাই। আমার কাছ থেকে জেনে অনেকেই সেখানে যাচ্ছে। সরকারিভাবে উদ্যোগ নেয়া হলে এটি পর্যটন এরিয়া হিসেবে গড়ে উঠবে।’
বিজয়নগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আলী আফরোজ গতকাল বুধবার দুপুরে কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘শাপলার এই বিলটি খুব সুন্দর। ওই এলাকার একটি রাস্তা হয়ে গেলে এখানে প্রকৃতিপ্রেমিদের আনাগোনা বাড়বে। পর্যটন এরিয়া হিসেবে গড়তে কি করা যায় সে বিষয়ে আমরা একটা পরিকল্পনা নেয়ার কথা ভাবছি।’


আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!