ব্রেকিং

x

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ঘুমন্ত ব্যক্তিকে হত্যা করে কাটা মুণ্ড নিয়ে ঘাতক থানায়

মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০১৯ | ৯:০০ অপরাহ্ণ | 1386 বার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ঘুমন্ত ব্যক্তিকে হত্যা করে কাটা মুণ্ড নিয়ে ঘাতক থানায়

শ্রমজীবী লিটন রায় বেড়াতে আসে ভগ্নিপতির বাড়ি। ভরদুপুরে প্রচণ্ড তাপদাহে স্বস্থি পেতে ঘুমিয়েছিলো মন্দিরে। ঘুমন্তাবস্থায় লিটনকে কুপিয়ে হত্যার পর তার খণ্ডিত মুণ্ডু ব্যাগে পুরে সোজা থানায় গিয়ে হাজির হন ঘাতক লবু দাস। পুলিশ তাকে আটক করাসহ নিহতের মরদেহ পাঠায় মর্গে। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলা এলাকার।

আজ মঙ্গলবার দুপুরের দিকে নাসিনগর উপজেলা সদরের গৌর মন্দিরের নাট মন্দিরে ঘটে লোমহর্ষক এই ঘটনা। নিহত লিটন ঘোষ (৫৫) কিশোরগঞ্জ জেলার কুলিয়ারচর উপজেলা এলাকার মতি ঘোষের পুত্র। অপরদিকে ঘাতক লবু দাস (৪৬) নাসিরনগর উপজেলা সদরের পশ্চিমপাড়ার প্রয়াত পরমানন্দ দাস পুত্র। তবে সে মানসিক প্রতিবন্ধী বলে তার পরিবারের দাবী।


ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয় এলাকাবাসী এবং পুলিশ সূত্রে জানা যায়, পার্শ্ববর্তী কুলিয়ারচর এলাকার বাসিন্দা শ্রমজীবী লিটন ঘোষ নাসিরনগর উপজেলা সদরের ঘোষপাড়াস্থ তার ভগ্নিপতি নেপাল ঘোষের বাড়িতে বেড়াতে আসে। আজ মঙ্গলবার দুপুরের দিকে প্রচণ্ড তাপদাহ থেকে স্বস্থি পেতে লিটন স্থানীয় গৌর মন্দিরের নাট মন্দিরের মেঝেতে ঘুমাচ্ছিলো। এসময় ঘাতক লবু দাস একটি ধারালো দা দিয়ে লিটন ঘোষকে কুপিয়ে শরীর থেকে মাথা বিচ্ছিন্ন  করে ফেলে। পরে লিটনের খণ্ডিত মুণ্ডু একটি ব্যাগে পুরে থানায় গিয়ে হাজির হয় ঘাতক লবু দাস। পুলিশ তাকে তৎক্ষণাতই আটক করাসহ লিটনের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

স্থানীয় একাধিক সূত্র জানায়, গৌর মন্দির এলাকায় নিত্য দিনই বসে গঞ্জিকাসেবীদের জমজমাট আড্ডা। ঘাতক লবু দাসও একজন নিয়মিত গঞ্জিকাসেবী। সে সবসময় মন্দির এলাকাতেই থাকে। বিগত কতেক বছর অগে অনেকটা এমনি কায়দাতেই সে প্রাক্তন মেম্বার মতিলাল দাসকে খুন করেছিলো। এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে জেলা সদর থেকে পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন খান ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলমগীর হোসাইনসহ প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করছেন। লিটন ঘোষকে হত্যার দায়ে আটককৃত লবু দাস একজন মানসিক প্রতিবন্ধী বলে দাবী করছেন তার পরিবার।

নাসিরনগর থানার পরিদর্শক (ওসি) সাজেদুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘ঘাতক লবু দাসকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!