ব্রেকিং

x

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ওসির অপসারণ দাবী

শনিবার, ২৭ অক্টোবর ২০১৮ | ১০:০৯ অপরাহ্ণ | 1723 বার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ওসির অপসারণ দাবী
ছবি-অনলাইন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া  সদর মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা  মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিনের অপসারণ চেয়েছে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও আদর্শ বাস্তবায়ন পরিষদ নামের একটি সংগঠন। আজ শনিবার বিকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবী জানায় সংগঠনটি।


রামরাইল ইউনিয়ন ছাত্রলীগ একই সময়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও আদর্শ বাস্তবায়ন পরিষদের সমাবেশস্থল উলচাপাড়া খেলার মাঠে কর্মীসভা ডাকায় আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতির আশঙ্কায় ১৪৪ ধারা জারির আবেদন করেন ওসি। পরে শুক্রবার রাতে ১৪৪ ধারা জারি করেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জান্নাতুল ফেরদৌস।


শনিবার সকাল ৬টা থেকে পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত পুরো রামরাইল ইউনিয়নে সব ধরনের সভা-সমাবেশ ও মিটিং-মিছিল নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও আদর্শ বাস্তবায়ন পরিষদে রয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব মো. মিজানুর রহমান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল আলম, জেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিন। এরা তিনজন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ (সদর ও বিজয়নগর) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। এ আসনের বর্তমান এমপি র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীর সঙ্গে তাদের রাজনৈতিক বিরোধ রয়েছে।

১৪৪ ধারা জারি করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও আদর্শ বাস্তবায়ন পরিষদের সমাবেশ বন্ধ করে দেয়ায় শনিবার বিকেল ৪টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন সংগঠনটির নেতারা।

এ সময় তারা অভিযোগ করেন, গত ১৫ দিন ধরে তারা সমাবেশ করার প্রস্তুতি নিয়েছেন। ব্যাপক প্রচারণাও চালিয়েছেন। সমাবেশের বিষয়ে জেলা প্রশাসককে লিখিতভাবে অবহিত করেছিলেন তারা। কিন্তু স্থানীয় রামরাইল ছাত্রলীগের নামে ভুয়া কর্মসূচি দেখিয়ে তাদের সমাবেশস্থলে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়। ১৪৪ ধারা জারির পর সদর থানার ওসির নেতৃত্বে শুক্রবার রাতে তাদের ছবি সংবলিত ব্যানার-ফেস্টুন ছিঁড়ে ফেলে দেয়া হয়। তাই আমরা ওসির অপসারণ দাবি করছি।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা আমানুল হক সেন্টু। এতে উপস্থিত ছিলেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল আলম, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব মো. মিজানুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিন, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার হারুন অর রশিদ, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী মিনারা আলম, জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি কাওসার আহমেদ ও জেলা যুবলীগ সভাপতি শাহনুর ইসলাম প্রমুখ।

আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!