ব্রেকিং

x

বাংলাদেশের নাগরিকত্ব বর্জন করেছেন তারেক রহমান

সোমবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৮ | ৮:৩৫ অপরাহ্ণ | 608 বার

বাংলাদেশের নাগরিকত্ব বর্জন করেছেন তারেক রহমান

মাতৃভূমির প্রতি ভালবাসা মানুষের সহজাত প্রবৃত্তি। একজন সত্যিকারের দেশপ্রেমিক হিসেবে আমাদের সবচেয়ে বড় পরিচয় হলো আমরা বাংলাদেশী। অন্য সব খেতাব, পরিচয় ও সম্মান তুচ্ছ হয় এ পরিচয়ের কাছে। কিন্তু মাতৃভূমিকে অস্বীকার করে, দেশ মাতৃকার ঋণ ভুলে গিয়ে যে ব্যাক্তি এ পরিচয়কে বর্জন করে, তাকে কি হিসেবে আখ্যায়িত করা যেতে পারে? স্বার্থপর, অকৃতজ্ঞ নাকি দেশদ্রোহী?


বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল বিএনপির ভাইস চেয়ারপারসন তারেক রহমান অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে দেশ ত্যাগ করেন দীর্ঘ নয় বছর আগে। এর পর থেকে লন্ডনেই অবস্থান করে বিভিন্ন মামলার পলাতক আসামি তারেক। কিন্তু যা শুনলে হয়তো অনেকেরই লজ্জায় মাথা কাটা যাবে তা হচ্ছে, তারেকের বাংলাদেশী নাগরিকত্ব বর্জনের খবর। লন্ডন বাংলাদেশী হাই কমিশন সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশ হাইকমিশনে পাসপোর্ট জমা দিয়ে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব বর্জন করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক জিয়া।


কিন্তু বিএনপির হাই কমান্ড এ বিষয়ে জ্ঞাত থাকার পরেও, তারেক রহমান কিভাবে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব পালন করে? আর তারেকের নাগরিকত্ব বর্জন করার মত গুরুত্বপূর্ণ একটি খবর কীভাবে মিডিয়া এড়িয়ে গেছে তাও জন্ম দেয় হাজারো প্রশ্নের।

৩০ কোটি বাঙালির পবিত্র রক্তের বিনিময়ে আমার পাই একটি স্বাধীন দেশের পরিচয়। আর সেই পরিচয়কে তুচ্ছ করার পরেও যে দেশের রাজনীতিতে নিজেকে সম্পৃক্ত রাখে সে কি নব্য রাজাকার নয়? একাত্তর এ রাজাকাররা যেমন চেয়েছিলো দেশকে পাকিস্তান বানাতে, তেমনি বাংলদেশী পরিচয় দিতে অনিচ্ছুক তারেকও কি বিদেশী এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতেই দেশের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত?

তাই আসুন, দেশবিরোধী সব ষড়যন্ত্র রুখে দিতে দেশত্যাগী রাজনীতিবিদদের বর্জন করি।

সুত্র: odwitiobangla.com

আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!