ব্রেকিং

x

রমেন্দ্র নারায়ন দেববর্মার স্মরণ সমাবেশ

ত্রিপুরার মানুষ জানে অষ্টম বামফ্রন্ট সরকার আসছে-বিজন ধর

বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | ২:০৩ অপরাহ্ণ | 554 বার

ত্রিপুরার মানুষ জানে অষ্টম বামফ্রন্ট সরকার আসছে-বিজন ধর
বিজন ধর

সিপিআইএমের ত্রিপুরারাজ্য সম্পাদক বিজন ধর বলেছেন, ত্রিপুরার মানুষ জানে অষ্টম বামফ্রন্ট সরকার আসছে। ১০ শতাংশ ভোট কম পড়ার বিষয় তুলে ধরে বিজেপি জোট ফাটকা ব্যবসায় নেমেছে। আসলে ভরা কলসী আওয়াজ করে না। শূন্য কলসী আওয়াজ করে।


গতকাল মঙ্গলবার চড়িলাম প্রয়াত বিধায়ক রমেন্দ্র নারায়ন দেববর্মার স্মরণ সমাবেশে বিজেপি জোটকে উদ্দেশ্য করে তিনি এই কথা বলেন।


সমাবেশে উপস্থিত লোকজনের উদ্দেশ্যে বিজন ধর আরো বলেছেন,  নির্বাচনের আগে আমাদের প্রতিপক্ষ রাজনৈতিক দলের নেতারা দল বদল করে দুইবার নাম পালটিয়েছে কিন্তু তাদের চিন্তা-ভাবনার কোনও পরিবর্তন হয়নি।  সাধারন মানুষের পরিপন্থী অর্থনীতি. মানুষের মধ্যে বিভাজনের নীতি এবং সমাজবিরোধী তৈরী করার নীতি অতীতেও আমরা দেখেছি। অতীতে কংগ্রেস-আইএনপিটি জোট ছিল। এর বদলে এবার বিজেপি-আইপিএফটি যুক্ত হয়েছে। নির্বাচনের আগেএ মনস্তাত্বিক প্রচার, প্রচুর অর্থশক্তি ব্যবহার করে ভোট কেনার চেষ্টা, প্রচার মাধ্যমের একাংশকে কিনে নিয়ে বাইরে থেকে লোক এনে একটা হওয়া তৈরীর চেষ্টা করেছে যে তারা সরকার গঠন করবে। সার্বিক ভাবে শান্তিপূর্ণ ভোট পড়েছে। পোষ্টাল ব্যালটসহ ভোটের হার ৯২ শতাংশ ছাড়াবে। বিরোধী শক্তিগুলো এবং সেই প্রচার মাধ্যমের একাংশ ভোটের হারের প্রাথমিক হিসাব নিয়েই ফাক খুজতে লাগলো যে ১০ শতাংশ ভোট কম পড়েছে তাতে বামফ্রন্ট সরকারে আসছে না। তারা সরকার গঠন করবে ইত্যাদি বলছে। অনেকে বলছে আমরা কেন সাংবাদিক সম্মেলন করে বামফ্রন্ট সরকার আসছে এটা বলছি না। আমরা বলছি, অষ্টম বামফ্রন্ট সরকার আসছে এটা কাউকে বুঝিয়ে বলার অপেক্ষা রাখে না। সে তো মানুষ জানেন। এটা একটা স্নায়ু যুদ্ধ ঠান্ডা যুদ্ধের মতো আবহাওয়া তৈরী করার চেষ্টা। এটা একেবারেই ফাটকা ব্যবসা। মানুষ ভোট দিয়েছেন, যাকে পছন্দ তাকে ভোট দিয়েছেন। তাতে দুটো সিট হারলে নতুন করে দু’তিনটে সিট আসবে। এটা কোনও অস্বাভাবিক ঘটনা না। আমরা চাই ঠিকমত মতো ভোট গণনা হোক। তিনি বলেছেন, ত্রিপুরাজ্যের মানুষের চিন্তা-চেতনায় বিরোধীদের মিথ্যা প্রচার, প্রলোভন দাগ কাটেনি। তারা ভুলে যাননি রাজ্যে শান্তি-সম্প্রতি আছে। উন্নয়নের ধারা আছে। অখন্ড ত্রিপুরাকেই তারা এগিয়ে নিতে চান। এই প্রেক্ষিতেই বিধানসভা নির্বাচন হয়েছে। চড়িলামেও এই লড়াই লড়তে লড়তেই প্রাণ দিয়েছেন রমেন্দ্র নারায়ন দেববর্মা।

সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, নিরঞ্জন দেববর্মা, নারায়ন রুপিনী, রমা দাস, নন্দকুমার দেববর্মা, বামফ্রন্ট প্রার্থী পলাশ দেববর্মা, ছিদ্দিকুর রহমান, অর্থমন্ত্রী ভানুলাল সাহা, গোরা চক্রবর্তী, কেশব দেববর্মা  প্রমুখ।

আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!