ব্রেকিং

x

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার বর্ষসেরা একাদশেও সাকিব-মুশফিক

বৃহস্পতিবার, ০৪ জানুয়ারি ২০১৮ | ২:১০ অপরাহ্ণ | 538 বার

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার বর্ষসেরা একাদশেও সাকিব-মুশফিক
বছরের শুরুতেই দুর্দান্ত এক মুহূর্ত উপহার দিয়েছিলেন সাকিব-মুশফিক। ফাইল ছবি

বছরটা কেমন কেটেছে বাংলাদেশের? ভালো-খারাপ দুই ধরনের উত্তরই মিলবে। তবে যদি প্রসঙ্গটা হয় সাকিব আল হাসান, সে ক্ষেত্রে উত্তর শুধুই ইতিবাচক হবে। ২০১৭ সালের সেরা একাদশ মানেই যেন সাকিবের জায়গাটা পাকা! ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া তিন সংস্করণের জন্য সেরা একাদশ নির্বাচন করেছে। তাতে টি-টোয়েন্টি ও টেস্ট দলে জায়গা পেয়েছেন সাকিব। সাদা পোশাকে সাকিব সঙ্গী পাচ্ছেন মুশফিকুর রহিমকেও।


টি-টোয়েন্টিতে সেরা একাদশ বেছে নিতে শুধু আন্তর্জাতিক ম্যাচ নয়, ঘরোয়া টি-টোয়েন্টির কথাও মাথায় রেখেছে সিএ। ঢাকা, জ্যামাইকা ও পেশোয়ারের হয়ে আলো ছড়ানো সাকিব ২৯ ম্যাচে (আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া) ৪৪৭ রান করেছেন এবার। ১৮ গড়ে ৩৭ উইকেটও আছে তাঁর। তাই টি-টোয়েন্টির অনেক বড় বড় নামকে পাশ কাটিয়ে এখানে ঢুকে পড়েছেন সাকিব।


টি-টোয়েন্টি একাদশ
ব্রেন্ডন ম্যাককালাম (নিউজিল্যান্ড), ক্রিস গেইল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), এভিন লুইস (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), হাশিম আমলা (দক্ষিণ আফ্রিকা), এবি ডি ভিলিয়ার্স (দক্ষিণ আফ্রিকা), লুক রনকি (নিউজিল্যান্ড, উইকেটরক্ষক), সাকিব আল হাসান (বাংলাদেশ), সুনীল নারাইন (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), মোহাম্মদ আমির (পাকিস্তান), ওয়াহাব রিয়াজ (পাকিস্তান), রশিদ খান (আফগানিস্তান)।

বছরের শুরুতেই চমকে দিয়েছিলেন সাকিব-মুশফিক। রেকর্ড গড়া এক জুটি (৩৫৯ রান) গড়ে বাংলাদেশের ইতিহাস সর্বোচ্চ ২১৭ রান করেছিলেন সাকিব। মুশফিকও করেছিলেন দেড় শ রান। সে ফর্ম দুজনই ধরে রেখেছেন বছরজুড়ে। শ্রীলঙ্কা ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে জেতা দুই ম্যাচেই সাকিব ছিলেন মূল ভূমিকায়। ২০১৭ সালে ১৪ ইনিংসে ৪৭.৫ গড়ে ৬৬৫ রান করেছেন এই অলরাউন্ডার। ২ সেঞ্চুরির সঙ্গে ৩টি ফিফটিও ছিল তাঁর। সে সঙ্গে ২৯টি উইকেট তো আছেই। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঢাকা টেস্টে ইনিংসে ১০ উইকেট প্রাপ্তিই ম্যাচ ঘুরিয়ে দিয়েছিল। সে ম্যাচেই টেস্ট খেলুড়ে প্রতিটি দলের বিপক্ষেই ইনিংসে ৫ উইকেট পাওয়ার চতুর্থ বোলার হয়েছেন সাকিব।

২০১৭ সালটা মুশফিকেরও ভালো কেটেছে। ৫৪.৭১ গড়ে ৭৭৬ রান। সাকিবের মতোই ২ সেঞ্চুরির সঙ্গে ৩টি ফিফটি। তবে মার্চের পর আর সেঞ্চুরি না পাওয়াটা নির্ঘাত পোড়াবে মুশফিককে।

টেস্ট একাদশ
ডিন এলগার (দক্ষিণ আফ্রিকা), ডেভিড ওয়ার্নার (অস্ট্রেলিয়া), চেতেশ্বর পূজারা (ভারত), স্টিভ স্মিথ (অস্ট্রেলিয়া), বিরাট কোহলি (ভারত, অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান (বাংলাদেশ), মুশফিকুর রহিম (বাংলাদেশ, উইকেটরক্ষক), রবীন্দ্র জাদেজা (ভারত), কাগিসো রাবাদা ((দক্ষিণ আফ্রিকা), নাথান লায়ন (অস্ট্রেলিয়া), জেমস এন্ডারসন (ইংল্যান্ড)।

একমাত্র ওয়ানডে দলেই বাংলাদেশ দলের কাউকে দেখা যায়নি।

ওয়ানডে একাদশ
রোহিত শর্মা (ভারত), কুইন্টন ডি কক (দক্ষিণ আফ্রিকা, উইকেটরক্ষক), বিরাট কোহলি (ভারত), জো রুট (ইংল্যান্ড), এবি ডি ভিলিয়ার্স (দক্ষিণ আফ্রিকা), বেন স্টোকস (ইংল্যান্ড), হার্দিক পান্ডিয়া (ভারত), লিয়াম প্লাঙ্কেট (ইংল্যান্ড), ট্রেন্ট বোল্ট (নিউজিল্যান্ড), হাসান আলী (পাকিস্তান), রশিদ খান (আফগানিস্তান)।

আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!