ব্রেকিং

x

এস.এস.সি পাসের খবর জানা হলো না ফয়সালের

রবিবার, ০৬ মে ২০১৮ | ৮:৫৩ অপরাহ্ণ | 2573 বার

এস.এস.সি পাসের খবর জানা হলো না ফয়সালের
নিহত এনামুল হক ফয়সাল

কসবা উপজেলার কুটি অটল বিহারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এস.এস.সি পরীক্ষা দেয়া মো. এনামুল হক ফয়সাল পাস করেছে। তবে তার ফলাফল জানা হয়নি। ফলাফল ঘোষণার কয়েক ঘন্টা আগে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছে ফয়সাল। ফয়সালের বাবা মো. রফিকুল ইসলাম কান্না জড়িত কণ্ঠে জানায়, পরীক্ষা পাসের পর স্বজনসহ বন্ধুবান্ধবকে মিষ্টি খাওয়াবে বলে দুই হাজার টাকা নেয়ার বায়না
ধরে ফয়সাল। তবে পাস করলে আরো এক হাজার টাকা বেশি দিবেন বলে জানিয়ে দেন তিনি। কিন্তু এর আগেই সে পরপারে চলে গেছে।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবার কসবা-কুটি সড়কের পৌর এলাকার রাজাপুরে শনিবার সন্ধ্যায় ট্রাক ও মোটর সাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে যে তিনজন মোটর সাইকেল আরোহী মারা যায় এর মধ্যে মো. এনামুল হক ফয়সাল একজন। কসবা উপজেলার কুটি অটল বিহারী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে এস.এস.সি পরীক্ষায় অংশ নেয় সে। আজ দুপুরে তার দাফন সম্পন্ন হয়। এছাড়া নিহত অন্যদের মধ্যে মো. নুরুল আমিন হোসেন এ বছর এইচ. এস. সি পরীক্ষা দিয়েছে ও মো. সজল মিয়া আগামী বছর এইচ. এস. সি পরীক্ষায় অংশ নেয়ার কথা। আজ নিজ নিজ এলাকায় ওই দুইজনেরও লাশ দাফন করা হয়েছে।  নিহত তিনজনই ছাত্রলীগের বিভিন্ন পদে আসীন ছিলেন। দুর্ঘটনায় আহত ছাত্রলীগ কর্মী ছোটন মিয়া কুমিল্লায় চিকিৎসা নিচ্ছেন।
এদিকে কসবা-আখাউড়া আসনের সংসদ সদস্য, আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ,  ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রলীগ, কসবা উপজেলা ছাত্রলীগ ওই তিনজনের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছে। উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে এক দিনের শোক কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ কালো ব্যাজ ধারণ ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়। দুপুরে কুটি ঈদগাহ মাঠে একসঙ্গে এনামুল হক ও নুরুল আমিনের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ তাঁদের কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।


এদিকে উপজেলার মঈনপুর গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে সজলের লাশ বিকেলে দাফন করা হয়। সজলরা ছিলেন দুই ভাই ও দুই বোন। জানাজাসহ বিভিন্ন কার্যক্রমে কসবা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আনিসুল হক ভূঁইয়া, পৌর মেয়র এমরান উদ্দিন জুয়েল, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রবিউল হোসেন রুবেল, সাধারন সম্পাদক শাহাদৎ হোসেন শুভন, কসবা উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মো. মনির হোসেন, সাধারন সম্পাদক আফজাল হোসেন খান রিমনসহ স্থানীয় ব্যক্তিবর্গ ও দলীয় শত শত নেতা-কর্মীরা অংশ নেন।
কসবা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. মনির হোসেন ও সাধারন সম্পাদক আফজাল হোসেন খান রিমন জানান, হতাহতরা সবাই ছাত্রলীগের খুবই তৎপর নেতা-কর্মী ছিলেন। তাঁদের মৃত্যুতে দলের অপূরণীয় ক্ষতি হলো। ট্রাক চালকের কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে তাঁরা দাবি করেন। দুর্ঘটনার খবর পাওয়ার পর থেকে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বেশ কয়েকবার খোঁজ নিয়েছেন।


কসবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুজ্জামান জানান, ঘটনার পরই ছুটে গিয়ে পুলিশ আহত অবস্থায় তিনজনকে কুমিল্লায় পাঠানোর ব্যবস্থা করে। দুর্ঘটনা ঘটানো ট্রাকের চালককে চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!