ব্রেকিং

x

আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে টানা ১৭দিন পর মাছ রফতানী শুরু

বুধবার, ১৪ মার্চ ২০১৮ | ১০:৩৯ পূর্বাহ্ণ | 788 বার

আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে টানা ১৭দিন পর মাছ রফতানী শুরু
আখাউড়া স্থলবন্দরের কাষ্টমস ও ইমেগ্রেশন অফিসারে সামনে দিয়ে ভারতের ত্রিপুরায় মাছ বুঝায় গাড়ি যাচ্ছে

টানা ১৭ দিন বন্ধ থাকার পর আজ বুধবার সকাল  সাড়ে ৯টায় আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে মাছ রফতানী বানিজ্য শুরু হয়েছে। এতে মাছ রফতানী বানিজ্যে জড়িত শত শত ব্যবসায়ী ও শ্রমিকের মধ্যে স্বস্তি ফিরেছে।


এদিকে সতের দিন মাছ রফতানী বন্ধ থাকায় সরকার অন্তত ১৫ কোটি টাকার বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন থেকে বঞ্চিত হয়েছে বলে ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন।
আখাউড়া স্থলবন্দরের মাছ রফতানী কারক উপ-কমিটির সভাপতি ইদন মিয়াসহ মাছ রফতানী কারক নাজিরুল হক, বোরহান উদ্দিন বাবুল, সামসুল আলম জানায়, ২৫ ফেব্রুয়ারী থেকে ১৩ মার্চ পর্যন্ত টানা ১৭ দিন মাছ রফতানী বন্ধ থাকার পর আজ বুধবার সকাল ১০টায় আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে মাছ রফতানী বানিজ্য শুরু হয়েছে। আজ প্রথমদিনে ৩০ মেট্রিক টন মাছ ভারতের ত্রিপুরায় রফতানী হয়েছে বলে তারা জানান।
তারা আরো জানান, টানা ১৭দিন মাছ রফতানী বন্ধ থাকায় মাছ ব্যবসায়ী ও শ্রমিকদের মধ্যে হতাশ বিরাজ করছিল। বেকার হয়ে পড়েছিল মাছ রফতানীর সাথে জড়িতরা। আজ মাছ রফতানী পুনরায় চালু হওয়ায় সবার মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে।
আখাউড়া স্থলবন্দরের শুল্ক কর্মকর্তা শ্যামল কুমার বিশ্বাস বলেছেন, আজ সকাল সাড়ে ৯টা থেকেই মাছ রফতানী বানিজ্য শুরু করেছে ব্যবসায়ীরা। সব ধরণের ব্যবসা পুনরায় চালু হওয়ায় স্থলবন্দরের ব্যবসা-বানিজ্যে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরেছে বলেও তিনি জানান।
উল্লেখ্য অবৈধ পথে মাছ পাচারের অভিযোগ তুলে গত ২৫ ফেব্রæয়ারী আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ভারতীয় ব্যবসায়ীরা মাছ রফতানী বানিজ্য বন্ধ করে দিয়েছিল। মাছ রফতানী বানিজ্য সচল করতে আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামছুজ্জামান পাচাররোধকারী বিভিন্ন আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের নিয়ে উপজেলা সম্মেলন কক্ষে ব্যবসায়ীদের সাথে গত ৫ মার্চ বৈঠক করে মাছ পাচার রোধে বিভিন্ন কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহন করলেও পরে ভারতের ত্রিপুরায় বিধান সভা নির্বাচন পরবর্তী সহিংতার কারণে মাছ রফতানী আর চালু হয়নি। ত্রিপুরায় পরিস্থিতি শান্ত হ্ওয়ায় আজ থেকে মাছ রফতানী শুরু হয়েছে বলে একাধিক মাছ ব্যবসায়ী জানিয়েছেন।


আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!