ব্রেকিং

x

ত্রিপুরায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা

আখাউড়া বন্দরের ব্যবসা বন্ধ। শত শত ব্যবসায়ী ও শ্রমিক বেকার

শনিবার, ১০ মার্চ ২০১৮ | ৯:৫৩ পূর্বাহ্ণ | 633 বার

আখাউড়া বন্দরের ব্যবসা বন্ধ। শত শত ব্যবসায়ী ও শ্রমিক বেকার

ভারতের ত্রিপুরায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় আখাউড়া স্থলবন্দরে মারাত্মক প্রভাব পড়েছে। অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্দরের সমস্ত আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বন্ধ করে দিয়েছেন ভারতীয় ব্যবসায়ীরা। কর্মহীন হয়ে পড়েছেন শত শত ব্যবসায়ী ও শ্রমিক। ভারতের ট্রানজিট পণ্য পারাপারও বন্ধ রয়েছে। এতে সরকার প্রতিদিন কোটি কোটি টাকার বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বলে বাংলাদেশী ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন।
আখাউড়া স্থলবন্দরের সাধারণ ব্যবসায়ীরা জানায়, ভারতের ত্রিপুরারাজ্যের বিধানসভার ভোট গ্রহণ হয় ৩ মার্চ। নির্বাচনে বিজেপি জোট বিজয়ী হওয়ার পর ত্রিপুরায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা শুরু হয়। এই সহিংসার অজুহাত দেখিয়ে ভারতের ব্যবসায়ীরা আখাউড়া স্থলবন্দরের সমস্ত আমদানি-রফতানি বন্ধ করে দেন। এর আগে পাচারের অভিযোগ তুলে ২৫ মার্চ মাছ রফতানি বন্ধের মাধ্যমে ভারতীয়রা আখাউড়া স্থলবন্দরের ব্যবসা অচলের সূচনা করে। স্থলবন্দরের অচল পরিস্থিতির জন্য ভারতের একটি ট্রানজিট পণ্যের চালান গত ৯ দিন ধরে আশুগঞ্জ নৌবন্দরে আটকা পড়েছে। স্থলবন্দরের ব্যবসায়ী মনির হোসেন বাবুল, রাজিব ভূঁইয়াও সফিকুল ইসলাম জানান, স্থলবন্দরের ব্যবসাবাণিজ্যের অচল পরিস্থিতিতে গত ১৫ দিন ধরে মাছ রফতানি বাণিজ্যে জড়িত শত শত মাছ ব্যবসায়ী ও শ্রমিক এখন কর্মহীন পড়েছে। অন্য ব্যবসায়ীদের ব্যবসাবাণিজ্যেও মারাত্মক প্রভাব পড়েছে। পুনরায় কখন বন্দরের ব্যবসা বাণিজ্য চালু হবে ভারতের ব্যবসায়ীরা নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না।
সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট মেসার্স আদনান ট্রেড ইন্টারন্যাশনালের মালিক আক্তার হোসেন বলেছেন, ট্রানজিট পণ্যবাহী এমভি গালফ-৩ নামে একটি জাহাজ ৫৫৬ মেট্রিক টন স্টিল পাইপ নিয়ে গত ৯ দিন ধরে আশুগঞ্জ নৌবন্দরে আটকা পড়ে আছে। গত মঙ্গলবার এই ট্রানজিট পণ্য বন্দর দিয়ে ত্রিপুরায় যাওয়ার কথা ছিল কিন্তু বন্দর বন্ধ থাকায় আটকা পড়েছে।
আখাউড়া সিঅ্যান্ডএফ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ফোরকান উদ্দিন খলিফা জানান, কয়েক দিনের মধ্যেই আখাউড়া স্থলবন্দরের ব্যবসাবাণিজ্যে স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরে আসবে। ত্রিপুরার নতুন মুখ্যমন্ত্রীর শপথ গ্রহণের মাধ্যমে সহিংস পরিস্থিতিও শান্ত হয়ে গেছে বলে তিনি জানান।
আখাউড়া স্থলবন্দরের শুল্ক কর্মকর্তা শ্যামল কুমার বিশ্বাস জানান, বন্দরে আটকা পড়া কিছু পচনশীল মালামাল ত্রিপুরায় প্রবেশ করলেও সব ধরনের আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বন্ধ করে রেখেছেন ভারতের ব্যবসায়ীরা। তবে দুই দেশের পাসপোর্টধারী যাত্রীদের পারাপার স্বাভাবিক আছে।
এ ব্যাপারে আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামছুজ্জামান জানান, স্থলবন্দরের ব্যবসাবাণিজ্য স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে প্রশাসনের সাথে ব্যবসায়ী সমাজের বৈঠক হয়েছে। আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই স্থলবন্দরের ব্যবসাবাণিজ্য ফিরে আসবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।



আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!