ব্রেকিং

x

আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে শিল্পকলা একাডেমির সংবর্ধনা

বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৯ | ১১:৪২ অপরাহ্ণ | 326 বার

আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে শিল্পকলা একাডেমির সংবর্ধনা

এক আবেগঘন পরিবেশে আজ বৃহস্প্রতিবার বিকালে পদন্নোতি প্রাপ্ত আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামছুজ্জামানকে বিদায়ী সংবর্ধনা দিয়েছে উপজেলা শিল্পকলা একাডেমি। উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে শিল্পকলা একাডেমির সদস্য, প্রশিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

অনন্য গুণের অধিকারী ও উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামছুজ্জামানের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী উম্মে শবনম মোস্তারী মৌসুমী, বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার ভুমি এ,একে এম শরীফুল হক।

সংবর্ধনা সভায় আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামছুজ্জামান বলেছেন, গত আড়াই বছর আগে যখন আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসাবে যোগদান করেছিলাম তখন উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির নামমাত্র একটি কমিটি ছিল। বর্তমানে উপজেলা শিল্পকলা একাডেমি জাতীয় পর্যায়ে প্রতিদ্বন্ধিতা করছে। নৃত্য, সংগীত ও চারুকলা বিভাগের শিক্ষার্থীরা দেশে বিদেশে যে কোন পর্যায়ে প্রতিদ্বন্ধিতা করার যোগ্যতা অর্জন করেছে। তার যত্নে গড়া এই একাডেমির বর্তমান অবস্থান ধরে রাখতে উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির সদস্যসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামছুজ্জামান আরো বলেন, একটি আইন দ্বারা সরকারী ভাবে উপজেলা শিল্পকলা একাডেমি গঠিত হয়েছে। এই একাডেমি জাতীয় শিল্পকলা একাডেমির অধীনে।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার স্ত্রী উম্মে শবনম মোস্তারী মৌসুমী বলেছেন, উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির সব অনুষ্ঠানে আমি যোগদান করেছি। এই একাডেমির অগ্রযাত্রায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে সবসময় সহযোগীতা করে এসেছি। সহযোগীতা করতে গিয়ে এই একাডেমির নৃত্য ও সংগীত শিল্পীদের সাথে মায়া বাধনে জড়িয়ে গেছি। শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি তাদের অভিভাবকদের সাথেও আমার সুন্দর একটি সম্পর্ক গড়ে উঠেছে।

তিনি আরো বলেন, আইন পেশার কারণে আমি ব্রাহ্মণবাড়িয়াতেই থাকছি। সকল সদস্যদের সুপারিশে আমাকে উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির জীবন সদস্য করা হয়েছে। উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির প্রয়োজনে আমাকে যখন ডাকা হবে আমি ছুটে আসবো।

 

এদিকে উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির পক্ষ থেকে যারা বক্তব্য দিয়েছেন সকলের মুখেই ছিল বিদায়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার প্রশংসা।  উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির সদস্য ও প্রশিক্ষকরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে সংবর্ধনা ও সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করেন। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বাংলাদেশ টেলিভিশনে অংশগ্রহনকারী শিক্ষার্থীদের হাতে প্রাপ্ত অর্থ তুলে দেন।

উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির জীবন সদস্য নুরুন্নবী ভুইয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রধান অতিথিকে সম্মননা ক্রেস্ট প্রদান দেন।

সংবর্ধনা সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আখাউড়া উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারন সম্পাদক মো: খুরশেদ আলম, কার্যকরী সদস্য আব্দুল আলীম, কাজী স্বপ্না সিফাত, জীবন সদস্য আবু কাউছার ভুইয়া, নুরুন্নবী ভুইয়া, মো: সাইফুল ইসলাম, মো: মনির হোসেন, বাদল আহাম্মদ খান, জালাল হোসেন মামুন, ময়নাল হক ভুইয়া, রুমা ঘোষসহ উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির সাথে সংশ্লিষ্ট সবাই।

হৃদয় বিদারক নানা ছন্দ ও কবিতার পংক্তি উদ্ধৃতির মাধ্যমে বিদায় অনুষ্ঠানকে প্রাণবন্তকর করে উপস্থাপনা করেন উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির কার্যকরী সদস্য অধ্যাপক কামাল উদ্দিন।

 

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!