ব্রেকিং

x

আখাউড়ায় হাওড়ানদীর ভাঙ্গনে বিলীন ৫ বাড়ি, ঝুকিপুর্ণ ১৩ পরিবার

বুধবার, ১৭ জুন ২০২০ | ৩:৫৯ অপরাহ্ণ | 1407 বার

আখাউড়ায় হাওড়ানদীর ভাঙ্গনে বিলীন ৫ বাড়ি, ঝুকিপুর্ণ ১৩ পরিবার

নুরুন্নবী ভুইয়া:
আখাউড়ায় টানমান্দাইল উত্তরচর এলাকায় হওড়ানদীর ভাঙ্গনে বিলীন হয়ে যাচ্ছে মানুষের ভিটেমাটি, বাড়িঘরসহ নানা স্থাপনা। গত ১০দিনের ভাঙ্গনে ৫ পরিবারের ভিটেমাটি ঘরসহ নানা স্থাপনা বিলীন হয়ে গেছে।ভাঙ্গন ঝুকিতে রয়েছে আরো ১৩টি পরিবার। অতিরিক্ত বৃষ্টিপাত ও ভারতীয় পাহাড়ি ঢলের পানিতে এখানে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলো জানিয়েছেন।


এদিকে আইনমন্ত্রী এ্যাডভোকেট আনিসুল হক এমপির নির্দেশে গতকাল মঙ্গলবার বিকালে আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহমিনা আক্তার রেইনা, আখাউড়া পৌরসভার মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল, উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা তাপস চক্রবর্তী, স্থানীয় চেয়ারম্যান মো: কামাল ভুইয়া ভাঙ্গন এলাকা পরির্দশন করেছেন।


খোজ নেয়ার সময় স্থানীয় ইউপি মেম্বার হুমায়ুন কবির ও ছাত্রলীগ নেতা মীর মো: আব্দুল হান্নান জানায়, অতিরিক্ত বৃষ্টিপাত ও ভারতীয় পাহাড়ী ঢলের পানিতে আখাউড়া মনিয়ন্দ ইউনিয়নের টানমান্দাইল উত্তরচরে গত ১০দিন ধরে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। নদীর ভাঙ্গনে উত্তরচরের নুরুল ইসলাম, সুজন মিয়া, আনোয়ারা বেগম, মশন মুন্সী ও হাবিব মিয়া নামে ৫ পরিবারের ভিটেমাটি বাড়িঘর বিলীন হয়ে গেছে। এই ভাঙ্গন রোধ করতে না পারলে আরো ১৩টি পরিবারের ভিটেমাটি বিলীন হয়ে যাবে বলেও তারা জানান। ঝুকি নিয়ে ১৩টি পরিবার বসবাস করছে এখানে।

তারা আরো জানান, মঙ্গলবার বিকালে আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও মেয়রসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা ভাঙ্গন এলাকা পরির্দশনের পর আজ বুধবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা মহিউদ্দিনের নেতৃত্বে একটি টিম এসেছে ভাঙ্গন এলাকায়। বাস্তব পরিস্থিতি দেখে ছবি ও ভিডিও করে নিয়েছেন তারা। তারা ভাঙ্গনরোধে কাজ করছেন বলেও ক্ষতিগ্রস্থদের আশ্ব্যাস দিয়েছেন।

ক্ষতিগ্রস্থ ৫ পরিবারের লোকজন জানায়, হাওড়ার ভাঙ্গণে তারা নি:স্ব হয়ে গেছেন।বসতবাড়ি সব বিলীন হয়েছে। ভাঙ্গনের যে গতি তাতে ঝুকিপুর্ণ ১৩টি বাড়িও হাওড়ানদীতে বিলীন হয়ে যাবে বলে তারা আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন। বিষয়টি তারা আইনমন্ত্রী এ্যাডভোকেট আনিসুল হক এমপিকে জানিয়েছেন বলেও জানান।

আখাউড়া পৌরসভার মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল জানায়, ভাঙ্গনের খবর পেয়ে সাথে সাথে আইনমন্ত্রী মহোদয় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করতে প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ডকে নির্দেশ দিয়েছেন। মঙ্গলবার বিকালে স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিরা ভাঙ্গন এলাকা পরির্দশন করে। ক্ষতিগ্রস্থদের খোজ নিয়ে সরকারী সহায়তার আশ্ব্যাস দিয়েছেন।

তিনি আরো জানান, ভাঙ্গন রোধে আজ বুধবার থেকেই ব্রাহ্মণবাড়িয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা কাজ শুরু করেছেন। বাস্তব পরিস্থিতি দেখতে ভাঙ্গন এলাকায় রয়েছেন তারা।

আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহমিনা আক্তার রেইনা জানান, মাননীয় আইনমন্ত্রী নির্দেশে প্রশাসন নদীর ভাঙ্গনরোধে কাজ শুরু করেছে। ক্ষতিগ্রস্থদের তথ্য সংগ্রহ করে জেলা প্রশাসনের নিকট পাঠানো হয়েছে। দুইদিনের মধ্যে ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্থরা সরকারী সহায়তা পাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!