ব্রেকিং

x

আখাউড়ায় মাছ বাজার বন্ধ ঘোষণা, সবজির বাজার স্থানান্তর

সোমবার, ১৩ এপ্রিল ২০২০ | ১:৩৭ অপরাহ্ণ | 789 বার

আখাউড়ায় মাছ বাজার বন্ধ ঘোষণা, সবজির বাজার স্থানান্তর
akhauranews.com

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে আখাউড়া উপজেলার বড় বাজার ও তন্তর বাজারের মাছের দুইটি আড়ত বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। আড়ত থেকেই খুচরা বাজারে মাছ আসে বলে এখন মাছের ‘আকাল’ দেখা দিতে পারে। এই অবস্থায় আজ সোমবার সকালে সড়ক বাজারে কেনার হিড়িক পড়লে বেলা ১১টার মধ্যেই সব মাছ শেষ হয়ে যায়।


এদিকে আখাউড়া সড়ক বাজারের সবজি বাজার স্থানান্তর করা হয়েছে। সড়ক বাজার দোতলা মসজিদের পিছনের জায়গা থেকে আজ সোমবার সকালে সবজি বাজারটি রেলওয়ে স্টেশনের সামনে স্থানান্তর করা হয়। সবজি বাজারও বন্ধ হয়ে যায় কি-না সেই শঙ্কায় সেখানে যেন ‘ঈদ বাজার’ দেখা যায়।


করোনা পরিস্থিতিতে নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে লক্ষ্যে বাজারটি স্থানান্তর করা হয়। সবজি বাজার সরিয়ে নেয়ার বিষয়টিকে অনেকেই সাধুবাদ জানিয়েছেন। একই সঙ্গে মাছের বাজারও অন্যত্র সরিয়ে নেয়ার দাবি তুলেছেন ক্রেতারা।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আখাউড়ার গঙ্গানগর গ্রামের নারায়ণগঞ্জফেরত এক নারী মারা গেছেন। এছাড়া আক্রান্ত হয়েছেন আরো এক নারী। এ অবস্থায় পুরো উপজেলাতে করোনা নিয়ে অনেকটা আতঙ্ক বিরাজ করছে।

সোমবার সকালে সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বেলা ১১টার পর সড়ক বাজারের মাছের বাজার একেবারে নিরব। দুই-চারজন ক্রেতা এলেও মাছের দেখা পাননি। ব্যবসায়ীদের দুই একজন মাছ বিক্রির সরঞ্জামাদি গুছিয়ে ফেলছেন। একই সময়ে অনতিদূরে স্টেশনের সামনের সবজি বাজারে অনেক ক্রেতার সমাগম লক্ষ্য করা যায়।

সড়ক বাজারের খুচরা মাছ ব্যবসায়ী ফজলু মিয়া বলেন, ‘আমি বড় বাজারের আড়ত থেকে মাছ কিনে এনে সড়ক বাজার বিক্রি করি। বড় বাজারের আড়ত বন্ধ করে দেয়ায় এখন থেকে আমি আর মাছ নিয়ে আসবো না।’

মাছ ব্যবসায়ী বিমল দাস বলেন, ‘মূলত আমরা আড়ত থেকে মাছ কিনে বিক্রি করি। এখন আমাদেরকে বলা হয়েছে স্থানীয় পুকুর থেকে সংগ্রহ করে মাছ বিক্রির জন্য। কিন্তু এভাবে মাছ সংগ্রহ করা আমাদের পক্ষে সম্ভব হবে না বলে বিক্রি বন্ধ রাখবো।’

বড় বাজারের বিছমিল্লাহ মৎস আড়তের মো. সবুজ জানান, বড় বাজারের আড়তে বিভিন্ন এলাকা থেকে মাছ আসে। বাজার কমিটির সঙ্গে সভায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে আড়ত বন্ধ রাখার জন্য। বাজার কমিটি আমাদেরকে জানিয়ে দেয়া সোমবার রাত থেকে আড়ত বন্ধ থাকবে। তবে সম্ভব হলে কেউ স্থানীয়ভাবে মাছ সংগ্রহ করে বিক্রি করতে পারবে।

আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তাহমিনা আক্তার রেইনা এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘অন্য জায়গার বদলে স্থানীয় উৎস থেকে মাছ সংগ্রহ করতে বলা হয়েছে। এতে যদি কোনো ধরনের সমস্যা দেখা দেয় তাহলে নতুন সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’

আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!