ব্রেকিং

x

আখাউড়ায় বৈরি আবহাওয়ায় লিচুর ত্বক ফেটে গেছে

বুধবার, ১৬ মে ২০১৮ | ৬:০৬ অপরাহ্ণ | 745 বার

আখাউড়ায় বৈরি আবহাওয়ায় লিচুর ত্বক ফেটে গেছে

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় এ বছর লিচুর ফলন বেশ ভালো হওয়ার আশা করা হচ্ছে। তবে লিচুর ত্বক ফেটে যাওয়ায় চাষীদের মনে খুব একটা আনন্দ নেই। এ অবস্থায় স্থানীয় বাজারে লিচুর দাম একটু বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।
উপজেলা কৃষি অফিস জানিয়েছে, গত কয়েকদিনের বৈরি আবাহাওয়ার কারণে লিচুর ত্বক ফেটে যাচ্ছে। এতে ফলন কমার শঙ্কার না থাকলেও ত্বক ফেটে যাওয়া লিচুতে দাম কম পাবে কৃষক। যে কারণে বাজারে এর কিছুটা প্রভাব পড়তে পারে।
উপজেলা কৃষি অফিসের এক হিসেব মতে, এখানে মোট লিচু বাগানের সংখ্যা ১৭০টি। ৯২৭ বিঘা জমির ওইসব বাগানে ফলন্ত গাছের সংখ্যা নয় হাজার ২৭৫টি। এছাড়া বসতবাড়ির আরো ছয় হাজার ৫৭৭টি গাছে লিচুর ফলন হয়েছে। মোট এক হাজার ৪২৬ মেট্রিকটন ফলন আশা করা হচ্ছে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপজেলার উত্তর ও মনিয়ন্দ ইউনিয়নে বেশির ভাগ লিচুর বাগান রয়েছে। স্থানীয় বাজারে এরই মধ্যে গত দুই দিন ধরে লিচু উঠতে শুরু করেছে। তবে এসব লিচু স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত নয়। স্থানীয় লিচু উঠতে আরো কয়েক দিন সময় লাগবে। তবে বৈরি আবাহাওয়ার কারণে স্থানীয় লিচুর ত্বক ফেটে যাওয়ায় কৃষকরা বেশ চিন্তিত।
এ অবস্থা থেকে যথাসম্ভব উত্তরণে উপজেলা কৃষি অফিস থেকে বিভিন্ন ধরণের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। পৌরসভা ও ইউনিয়ন ভিত্তিক ‘স্কোয়াড’ গঠন করে দিয়ে কৃষকদেরকে পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। বলা হচ্ছে, এক টানা তিন সপ্তাহ গাছে বরিক এসিড ও জিঙ্ক সালফেট স্প্রে করতে।
উপজেলার উত্তর ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামের ক্যান্টন হোসেন জানান, তার সব কয়টি গাছের লিচুর ত্বকই ফেটে গেছে। শীলা বৃষ্টির কারণে কিছু আর বাকিগুলো এমনিতেই ফেটে যায়। এ অবস্থায় যারা বাগান কিংবা গাছ কিনেছেন তাদেরকে লোকসানের মধ্যে পড়তে হবে।
আনজু মোল্লা নামে এক লিচু ব্যবসায়ি বলেন, ‘আখাউড়া ও বিজয়নগর উপজেলা মিলিয়ে আমি ২৭টি লিচুর বাগান কিনেছি। ফলন বেশ ভালো হলেও বেশিরভাগ বাগানের লিচু ফেটে গেছে। ফেটে যাওয়া লিচুর দাম ভালো পাওয়া যাবে না বলে লোকসান হবে।’
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. জুয়েল রানা ও কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা বিকাশ রায় বলেন, ‘পৌরসভা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে দুই-তিনজনকে দিয়ে একটি করে স্কোয়াড গঠন করা হয়েছে যারা ক্ষতিগ্রস্থ লিচু চাষিদেরকে পরামর্শ দিচ্ছেন। পরামর্শ অনুযায়ি কৃষকরা বরিক এসিড ও জিঙ্ক সালফেট স্প্রে করলে ক্ষতি কিছুটা কম হবে।’ ক্ষতিগ্রস্থদের একটি তালিকাও তৈরি করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।



আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!