ব্রেকিং

x

আখাউড়ায় নিষিদ্ধ ঘোষিত পিরানহা মাছ চাষ হচ্ছে। জড়িত কিছু অসৎ মৎস্য চাষী

বৃহস্পতিবার, ১২ এপ্রিল ২০১৮ | ৩:১৫ অপরাহ্ণ | 1237 বার

আখাউড়ায় নিষিদ্ধ ঘোষিত পিরানহা মাছ চাষ হচ্ছে। জড়িত কিছু অসৎ মৎস্য চাষী
ছবি-অনলাইন

আখাউড়ায় পুকুর ও জলাশয়ে ভয়ঙ্কর রাক্ষুসে মাছ পিরানহা চাষ করা হচ্ছে। অধিক মুনাফা অর্জন করতে এক শ্রেনীর মৎস্য চাষী এই অপকর্ম করছে। গত মঙ্গলবার ঘাগুটিয়া নামে একটি গ্রামে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে নিষিদ্ধ ঘোষিত বিপুল পরিমান পিরানহা মাছ জব্দসহ তিন মৎষ্য চাষীর বিরুদ্ধে আইন প্রয়োগ হয়েছে।


খোজ নিয়ে জানাগেছে, আখাউড়া উপজেলার সীমান্ত এলাকার বিভিন্ন স্থানে পুকুর জলাশয়ে রাক্ষসে প্রজাতির এই পিরানহা মাছ চাষ করা হচ্ছে। স্থানীয় মৎস্য অফিসও বিষয়টি জানে বলে খবর পাওয়া গেছে। ভারতের ত্রিপুরারাজ্যে ও স্থানীয় বাজারগুলোতে এই মাছের চাহিদা থাকায় অর্থলোভী কিছু মৎস্য চাষী পিরানহা চাষে আগ্রহী হয়ে পড়েছে। চাষকৃত অধিকাংশ পিরানহা মাছ চোরাচালানীরা অবৈধ পথে ভারতে পাচার করছে বলেও খবর পাওয়া গেছে। শুধু তাই নয় অর্থলোভী মৎস্য চাষীরা চোরাচালানীদের সাথে সব সময় যোগাযোগ রেখে এই অবৈধ মৎস্য চাষ করছে বলেও অনেকে জানিয়েছেন।


একজন মৎস্য কর্মকর্তা জানায়,  ভয়ঙ্কর রাক্ষুসে মাছের নাম পিরানহা। চলে ঝাঁকে ঝাঁকে, লাখে লাখে। আকারে খুব বড় না হলেও বিপদের দিক দিয়ে সবাইকে ছাড়িয়ে। মাত্র ৫ মিনিটেই একটি জলজ্যন্ত হাতি সাবাড় করে দিতে পারে এই মাছ। রাক্ষুসে প্রজাতির এই মাছের রয়েছে শক্ত ও তীক্ষ্ণ দাঁত এবং শক্তিশালী চোয়াল। খুব সহজেই অন্যান্য মাছের মাংস ছিঁড়ে নিতে পারে।

তিনি আরো জানান, এ মাছ মুক্ত জলাশয়ে ছড়িয়ে পড়লে তা হবে ভয়াবহ সংবাদ। রাক্ষুসে মাছটি ছোট মাছ, বড় মাছ, গৃহপালিত পশু এমনকি মানুষ পর্যন্ত এর হাত থেকে রক্ষা পাবে না। পুকুরে এই প্রজাতির মাছ চাষের ফলে পুকুরে অবস্থিত দেশি প্রজাতির মাছ বিলুপ্ত হয়ে যেতে পারে। কোনভাবে পুকুর থেকে এই মাছ নদীতে চলে আসলে আমাদের মৎস্য সম্পদের জন্য এক মহা বিপর্যয় নেমে আসবে।

fc

আখাউড়া উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা শরীফ হোসেন জানান, বর্তমানে পিরানহা মাছের চাষ অনেক হ্রাস পেয়েছে আখাউড়ায়। সীমান্ত এলাকায় গোপনে কিছু অসৎ মৎস্য চাষী নিষিদ্ধ পিরানহা চাষ করছে। তিনি আরো বলেছেন মঙ্গলবার আখাউড়া উপজেলার সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট জেসমিন সুলতানা আখাউড়া ঘাগুটিয়া গ্রামের তিনটি পুকুরে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ৪৬ মণ নিষিদ্ধ ঘোষিত পিরানহা মাছ জব্দসহ মৎস্য রক্ষা ও সংরক্ষন আইনে স্থানীয় মো: সেলিম মিয়া (৪২) ও আব্দুল মন্নান (৬৫)কে জরিমানা করেছেন এবং টুটন মিয়া (৪৫) এর বিরুদ্ধে মামলার সুপারিশ করেন।

 

 

আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!