ব্রেকিং

x

আখাউড়ায় করোনা সচেতনতায় মাইক হাতে শিশু রুদ্রজিৎ, প্রশংসায় সরব আখাউড়াবাসী

শনিবার, ০২ মে ২০২০ | ১২:৪৮ অপরাহ্ণ | 1335 বার

আখাউড়ায় করোনা সচেতনতায় মাইক হাতে শিশু রুদ্রজিৎ, প্রশংসায় সরব আখাউড়াবাসী

করোনায় স্বাস্থ্য সচেতনতায় এবার প্রচারে নেমেছেন প্রথম শ্রেণীতে পড়ুয়া রুদ্রজিৎ পাল নামে এক শিশু। আজ শনিবার সকালে আখাউড়া উপজেলার বিভিন্ন সড়কে ঘুরে ঘুরে মাইকিং করে মানুষকে ঘরে থাকার আহবান জানায় এই শিশু।


এদিকে  একজন শিশুকে এমন ভাবে প্রচার করতে দেখে প্রশংসায় সরব হয়েছেন আখাউড়াবাসী। যেভাবে শিশুটি রাস্তায় অটোরিক্সা করে মাইকে প্রচার করছেন তা দেখে উচ্ছুসিত হয়েছে মানুষ। স্বাস্থ্য সচেতনতার পাশাপাশি তার নিজের হাতে লেখা একটি লিফলেট বিতরণ করছে, বিতরণ করছে মাস্ক।


আখাউড়া পৌরসভার রাধানগর গ্রামের বাসিন্দা দৈনিক ‘কালের কন্ঠ’ সংবাদপত্রের ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক বিশ্বজিৎ পাল বাবুর প্রথম সন্তান এই রুদ্রজিৎ পাল।

শিশু রুদ্রজিতের এই উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহমিনা আক্তার রেইনা। তিনি বলেছেন, এটি একটি ভালো উদাহরণ আখাউড়াবাসীর জন্য। স্বাস্থ্য সচেতনায় তার মাইকিং, নিজের হাতে লেখা লিফলেট বিতরণ, মাস্কও বিতরণ করছে। আশা করি এই শিশুর আহবানে সারা দিয়ে মানুষ সচেতন হবে।

আখাউড়া টেলিভিশন জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক বাংলা টিভির প্রতিনিধি মো: সাইফুল ইসলাম জানান, করোনায় স্বাস্থ্য সুরক্ষার সচেতনতায় রুদ্রজিতের প্রচারনার বিষয়টি খুবই প্রশংসনীয়। তিনি নিজেও উৎসাহিত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন।

প্রথম শ্রেণীতে পড়ুয়া রুদ্রজিতের মাইকিং, লিফলেট আর মাস্ক বিতরণের বিষয়টি দেখে তার শিক্ষক জহিরুল ইসলাম সাগরও বেশ খুশি হয়েছেন বলে জানান। তিনি বলেছেন, এটি আখাউড়ায় আলোচিত ঘটনার মধ্যে একটি। তার পড়াশুনা আর মেধার বিষয় নিয়েও তার শিক্ষক প্রশংসা করেছেন।

গতকাল এই সংক্রান্ত এক ফেসবুক পোষ্টে তার পিতা বিশ্বজিৎ পাল বাবু বলেছেন, লিফলেট, মাস্ক ও মাইক নিয়ে নামছে কনিষ্ঠ করোনাযোদ্ধা।

তিনি বলেন, টিভিতে দেখে করোনা প্রচারণার বেশ কিছু ডায়ালগ মুখস্থ রুদ্র’র। প্রায় সময়ই ঘরে এসব ডায়ালগ বলে বেড়ায়- ‘শুনুন শুনুন শুনুন। একটি ঘোষণা শুনুন। আপনারা স্বাস্থ্য সচেতন থাকবেন। অকারণে ঘর থেকে বের হবেন না। ঘর থেকে বের হলে মুখে পড়ুন মাস্ক, হাতে পড়ুন গ্লাভস। দূরত্ব বজায় রাখবেন। নিয়মিত হাত ধোবেন। ঘরে থাকুন, সুস্থ থাকুন।

তিনি আরো বলেন, পরে মুখস্থ করা ডায়ালগ কাগজে লিখলো। সঙ্গে কিছু লেখা যোগ করার কথা বলে দিলাম। তৈরি হল লিফলেট। সেই সঙ্গে মাইক ও অটোরিকশা ভাড়া করে দিলাম। পরে মাস্ক এর আবদার। রুদ্র লিফলেটের সঙ্গে মাস্কও বিতরণ করতে চায়। সেই আবদারও পূরণ হলো। আজ শনিবার নেমে গেল ‘করোনাযুদ্ধে’। সকাল ১০টায় আখাউড়ার সড়ক বাজার থেকে মাইক নিয়ে বের হয় রুদ্র। পথ চলায় সহযোগিতা করতে সাথে রয়েছেন নিয়মিত ধারাভাষ্যকার ও মাইকম্যান হিসেবে পরিচিত খোরশেদ আলম বাবু ভাই।

আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!