ব্রেকিং

x

আখাউড়ায় ‘আমরা ৯৫’ এর ব্যতিক্রম উদ্যোগ ‘নাতির লাইগ্যা বিস্কুটের প্যাকেটঅ নিতাম পারছি’

বুধবার, ০১ এপ্রিল ২০২০ | ৩:১০ অপরাহ্ণ | 815 বার

আখাউড়ায় ‘আমরা ৯৫’ এর ব্যতিক্রম উদ্যোগ ‘নাতির লাইগ্যা বিস্কুটের প্যাকেটঅ নিতাম পারছি’
akhauranews.com

এটা সেটা কিনে ১৫ টাকা রয়ে গেছে। দোকানীর এমন কথা শুনে দুই প্যাকেট বিস্কুট নিলেন ২০ টাকায়। দোকানী বাড়তি পাঁচ টাকা রাখেন নি। কথা হলে স্টেশনের ভাত বিক্রেতা (বর্তমানে বন্ধ) হারুনা খাতুন বলেন, ‘বালা অইত্ত অইছে। সব বাজার কইরা নাতির লাইগ্যা দুইটা বিস্কুটের প্যাকেটঅ নিতাম পারছি।’


একটি কার্র্ড নিয়ে আজ বুধবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া সড়ক বাজারের মেসার্স ভুইয়া জেনারেল স্টোরে পণ্য নিতে আসেন তিনি। জানালেন, একটি সংগঠনের ওই কার্ড দেখিয়ে ওই দোকান থেকে তিনি নিজের মনের মতো করে ৫০০ টাকার নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী কিনতে পেরেছেন।


কি চাল দিবো? দোকানীর এমন প্রশ্নে সিএনজি চালক জাহের মিয়া বলেন, ‘সিদ্দ (সাধারন চাল) চালঅই দেন। রোজি যখন করতাম পারুম তখন পোলাওয়ের চাল কিইন্না খামুনে। আগে পেডেরে শান্তি দিয়া লই।’ জাহের মিয়াও কার্ড নিয়ে এসে ৫০০ টাকার পণ্য কিনলেন।

দোকানী মো. ফোরকান জানালেন, আখাউড়া থেকে এস.এস.সি পাস করা শিক্ষার্থীদের নিয়ে গড়া সংগঠন ‘আমরা ৯৫’ এর দেয়া কার্ড নিয়ে এসে উপকারভোগীরা নিজ ইচ্ছে মতো বাজার কিনছেন। পান, সিগারেট, আইসক্রীম, ঠান্ডা পানীয় বাদে কার্ডধারীদের অন্য নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস দেয়ার জন্য সংগঠনের পক্ষ থেকে বলে দেয়া হয়েছে। সেই অনুসারে সকাল নয়টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত ২৩ জন পণ্যসামগ্রী নিয়ে গেছেন। নিজের মতো করে আট-দশ ধরণের পণ্য কিনতে পেরে উপকার ভোগীরা বেজায় খুশি।’

পরিদর্শনে এসে এমন ব্যতিক্রমী উদ্যোগের প্রশংসা করছেন আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তাহমিনা আক্তার রেইনা। এমন উদ্যোগের ফলে সামাজিক দূরত্ব বজায় থাকার পাশাপাশি উপকারভোগীরা চাহিদা মতো পণ্য নিতে পারছেন বলে সুবিধা হয়েছে। এ সময় তিনি এক উপকারভোগীর হাতে মুখোশ তুলে দেন।

উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন আখাউড়া পৌরসভার মেয়র মো. তাকজিল খলিফা কাজল। কথা হলে তিনি জানান, নিসন্দেহে এ উদ্যোগটি খুবই ব্যতিক্রম। এলাকাভিত্তিক পরিচ্ছন্নতা অভিযানে কাজ করতে ও সচেতনতা সৃষ্টি করতে তিনি সংগঠনের নেতৃবৃন্দের প্রতি আহবান জানান।

‘আমরা ৯৫’ আখাউড়ার নেতৃবৃন্দ জানান, বাড়িতে গিয়ে দেয়া, ডেকে এনে দিতে গিয়ে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে না পারা অর্থাৎ করোনা সংক্রমণের শঙ্কা থেকেই এমন সিদ্ধান্ত। এছাড়া সবার তো ঠিক জানা নেই যে এই মুহুর্তে কার ঘরে কি সামগ্রী কিংবা কতটুকু প্রয়োজন। দরিদ্রদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণে নিজেরা ছবি তুলে কাউকে বিব্রত করা হচ্ছেনা বলেও তাঁরা জানিয়েছেন। প্রাথমিকভাবে ধাপে ধাপে মোট ৩০০ পরিবারের মাঝে এভাবে নিত্যপ্রয়োজনী সামগ্রী কেনার সুযোগ দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন নেতৃবৃন্দ।

আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!