ব্রেকিং

x

আখাউড়ার দুই সরকারি কর্মকর্তার করোনা সন্দেহে বাড়িতে লাল পতাকা

বুধবার, ০১ এপ্রিল ২০২০ | ১০:৫৫ অপরাহ্ণ | 2564 বার

আখাউড়ার দুই সরকারি কর্মকর্তার করোনা সন্দেহে বাড়িতে লাল পতাকা
akhauranews.com

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ার দুই সরকারি কর্মকর্তা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। ওই দুইজনই কয়েকদিন ধরেই জ্বর, সর্দি ও কাশিতে ভুগছেন। তাঁরা একই দিনে প্রবাসী অধ্যুষিত এলাকায় বাজার৬ পরির্দর্শনে গিয়েছিলেন।


এ অবস্থায় এক সরকারি কর্মকর্তার বাঞ্ছারামপুরের বাড়িতে লাল পতাকা টানিয়ে দেয়া হয়েছে। অন্যজন ঢাকায় হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন। দুইজনেরই নমুন সংগ্রহের প্রক্রিয়া চলছে।


এদিকে ওই দুইজনের অসুস্থতার খবরে আখাউড়া ও বাঞ্চারামপুর উপজেলাতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। তবে আতঙ্কিত না হয়ে সবাইকে সচেতন থাকার জন্য পরামর্শ দিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

একাধিক সূত্র জানায়, আখাউড়া স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল বিভাগ এবং জনস্বাস্থ্য ও প্রকৌশল বিভাগে কর্মরত ওই দুই কর্মকর্তা ছাড়াও একজন নারী কর্মকর্তা গত ২১ মার্চ তন্তর বাজার পরিদর্শনে যান। এর দুইদিন পর থেকে প্রকৌশল বিভাগের দুই কর্মকর্তারে শরীরের নানা উপসর্গ দেখা দেয়। এর মধ্যে একজনের অবস্থা একটু বেশি খারাপের দিকে হওয়ায় সতর্ক করে দিয়ে হোম কোয়ারেন্টিতে থাকার কথা বলা হয়। তিনি হোম কোয়ারেন্টিন না মেনে খাবারে অসুবিধা হচ্ছে বলে নিজ গ্রামের বাড়ি বাঞ্চারামপুরের রূপসদীতে চলে যান। আরেকজন ঢাকায় চলে যান।

বাঞ্চারামপুরের ওই ব্যক্তির অবস্থা অবনতির দিকে গেলে স্থানীয়ভাবে বিষয়টি জানাজানি হয়।  মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ আল-মামুন ওই কর্মকর্তার বাড়ি যান। পরে তাঁর বাড়িতে লাল কাপড় দিয়ে নিশানা টানানো হয়। পাশাপাশি বাড়ির সবাইকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দেয়া হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ আল মামুন বলেন, ‘ওই কর্মকর্তার উচ্চ মাত্রায় জ্বর ও কাশি আছে। তবে তার অবস্থা স্থিতিশীল। ওই রোগীর নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হবে।’

বাঞ্ছারমাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাছির উদ্দিন সরোয়ার জানান, বর্তমানে তাঁর অবস্থা ভালো। ঢাকার একটি দল তাঁর নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) তাহমিনা আক্তার রেইনা বলেন, ‘একজন র্কর্মকর্তাকে শুরু থেকেই সতর্ক করা হয়। তিনি হোমকোয়ারেন্টিন না মেনে বাড়ি গিয়ে আর আসেননি। ওনার বাড়িতে লাল পতাকা টানিয়ে দেয়ার বিষয়টি শুনেছি। অন্যজন ঢাকায় নিয়ম মেনে ঘরে আছেন। দুইজনরেই নমুনা সংগ্রহের প্রক্রিয়া চলছে।’

আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!