ব্রেকিং

x

আখাউড়ার গ্রামীণ জনপদে প্রাণের ছোয়া ‘কেন্দুয়াই মেলা’ সম্পন্ন

মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৮ | ৪:০১ অপরাহ্ণ | 1082 বার

আখাউড়ার গ্রামীণ জনপদে প্রাণের ছোয়া  ‘কেন্দুয়াই মেলা’ সম্পন্ন
উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা, মেয়র ও প্রশাসনের লোকজনসহ স্থানীয় নেতাকর্মীদের মেলা পরিদর্শন। পাশে মেলার একটি চিত্র

গতকাল সোমবার দিনব্যাপী আবহমান বাংলার চিরায়ত ঐতিহ্য আখাউড়ার গ্রামীণ জনপদের ‘কেন্দুয়াই মেলা’ সম্পন্ন হয়েছে। বাঙালীর প্রাণের উৎসব বৈশাখ উদযাপনের অবিচ্ছেদ অংশ হিসাবে প্রায় ১০০ বছর আগে থেকে আখাউড়া দক্ষিন ইউনিয়নের কেন্দুয়াই গ্রামে এই ‘কেন্দুয়াই মেলা’ শুরু হলেও এবার মেলা হয়েছে সাতপাড়া হেলিপ্যাড মাঠে।


এদিকে মেলার দিন এলাকার মানুষজনের মাঝে যেন প্রাণের ছোয়া বইছিল। প্রতিবারের মত এবারও মেলায় হরেক রকমের কুটির শিল্প আর হস্ত শিল্পের বাহারি প্রদর্শনী ছিল। ছিল বাংলার ঐতিহ্য মাটির তৈরী বিভিন্ন পণ্য। মেলায় নানা স্বাদের মুড়ি-মুড়কি আর পিঠা ছিল। মেলায় অন্যতম আকর্ষণ ছিল শিশুদের হরেক রকমের খেলনা। মাটির পুতুল, ব্যাংক, আম, কাঠাল, হরিণ, ঘোড়া, হাতি, মাছ, ময়ুর, সিংহসহ বিভিন্ন ধরণের শিশুর খেলনা, ঘর গৃহস্থালির হাড়ি পাতিল, ঢাকনা, কলসসহ নানান তৈজসপত্র, ঘর সাজানোর জন্য ফুলদানি, টবসহ অনেক জিনিসপত্র মেলায় দেখাগেছে। খাবারের মধ্যে ছিল রসগোল্লা, জিলাপী, দধি, সন্দেশ, চমচমসহ অনেক কিছু।


এদিকে সোমবার মেলায় শিশু কিশোরদের পরিমান ছিল অনেক বেশী। খেলনার দোকানগুলোতে তাদের বেশ ভীড় দেখাগেছে। মেলা উপলক্ষ্যে এলাকায় উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করে। আনন্দ আর খুশিমুখে দলে দলে মেলায় যাচ্ছিল মানুষ।

এ ব্যপারে স্থানীয় দক্ষিন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মো: জালাল উদ্দিন বলেছেন, কেন্দুয়াই মেলা এখানকার মানুষের প্রাণের স্পন্দন। বাঙালির কৃষ্টি কালচার আর ঐহিত্য নিয়ে বর্নিল সাজে মেলা শুরু হয় সাতপাড়া হেলিপ্যাড মাঠে। তিনি আরো বলেছেন, শতাধিক বছর ধরে এই মেলা হয়েছে কেন্দুয়াই গ্রামে কিন্তু এবার মেলার ভূমি দখলদারদের হাতে চলে যাওয়ায় বাধ্য হয়ে সাতপাড়ার হেলিপ্যাড মাঠে মেলার আয়োজন করা হয়।

এদিকে সোমবার বিকালে কেন্দুয়াই মেলার মাঠ পরির্দশনসহ মেলার বিভিন্ন আয়োজন ঘুরে দেখেন আখাউড়া উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামছুজ্জামান।

এ ব্যাপারে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামছুজ্জামান বলেছেন, বৈশাখ উদযাপনের এই মেলায় আমাদের জাতীয় চেতনা ও ঐতিহ্যের সামগ্রিক প্রতিচ্ছবির দেখা মিলেছে। একদিকে যেমন উৎসবে মেতে ওঠে নবীন-প্রবীণ, শিশু-কিশোর অন্যদিকে নিজস্ব সংস্কৃতি সম্পর্কে আমাদের নতুন প্রজন্মও পরিমার্জিত ধারণা লাভ করতে পারে।

এ সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে ছিলেন আখাউড়া পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক তাকজিল খলিফা কাজল, আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোশারফ হোসেন তরফদার, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী উম্মে শবনম মোস্তারী মৌসুমী, আখাউড়া থানার ওসি তদন্ত আরিফ আমীন, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক আবুল কাশেম ভুইয়া প্রমুখ।

আখাউড়ানিউজ.কমে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিও চিত্র, কপিরাইট আইন অনুযায়ী পূর্বানুমতি ছাড়া কোথাও ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!